উত্তরবঙ্গে প্রথম প্লাজমা ট্রান্সপ্লান্ট আরম্ভ

এবার উত্তরবঙ্গে প্রথম প্লাজমা ট্রান্সপ্লান্ট করে করোনা মোকাবিলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর আগে সম্প্রতি কলকাতায় করোনা জয়ীর শরীর থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করে সংক্রমিত রোগীকে সারিয়ে তোলার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এদিন ওই প্লাজমা ট্রান্সপ্লান্টের উদ্যোগ নেওয়া হলেও সরকারি অনুমোদন এবং প্রয়োজনীয় নথি না থাকার কারণে তা করা যায়নি। জানা গিয়েছে, উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসক অনির্বান রায় প্লাজমা দান করার জন্য এগিয়ে আসেন। সম্প্রতি তিনি করোনাকে জয় করেছেন। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে করোনা সংক্রমিত রোগীদের চিকিৎসা করার সময় সংক্রমিত হন তিনি। এরপর চিকিৎসায় সেরে সেরে ওঠেন। সোমবার রাতে শহরের এক করোনা সংক্রমিত মুমূর্ষু রোগীকে বাঁচাতে প্লাজমা দান করার সিদ্ধান্ত নেন। তাঁর সেই মহৎ উদ্যোগে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসে তাঁর সহকর্মী, স্বাস্থ্য দফতর এবং করোনা কেয়ার নেটওয়ার্ক সোস্যাইটি। এদিন বিকেলে সেভক রোডের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা তরাই ব্লাড ব্যাংকে প্লাজমা দানের প্রক্রিয়াও শুরু হয়। কিন্তু ওই স্বেচ্ছা সেবী সংস্থার কাছে প্রয়োজনীয় নথি না থাকায় এদিন তা শেষ করা সম্ভব হয়নি। তবে দু এক দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় নথি এবং সরকারি অনুমোদন চলে আসার কথা রয়েছে। নথি এলেই শুরু হবে প্লাজমা দানের প্রক্রিয়া। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ডিন সন্দীপ সেনগুপ্ত বলেন, “অনির্বানবাবু যে মহৎ উদ্যোগ নিয়েছে তাকে সাধুবাদ জানাই। প্রত্যেক করোনা জয়ীকে এভাবে এগিয়ে আসা উচিৎ। পরবর্তীতে সরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে প্লাজমা থেরাপি শুরু করা যায় কিনা সেটার আবেদন করা হবে স্বাস্থ্য দফতরকে।” অনির্বান রায় বলেন, “প্রত্যেককে এই মহামারির পরিস্থিতি মোকাবিলায় এগিয়ে আসা উচিৎ।”

আরও পড়ুন:  প্রয়াত হলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র